চাঁদপুরের নারায়ণপুর পৌরসভা উচ্চ আদালতের রায়ে বহাল

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলার নারায়নপুর ইউনিয়নকে নারায়ণপুর পৌরসভা ঘোষণা নিয়ে দায়ের করা মামলা নিষ্পত্তি হয়েছে। নারায়ণপুর পৌরসভাকে বহাল রেখে উচ্চ আদালত রায় ঘোষণা করেছে। দীর্ঘদিনের পক্ষে বিপক্ষের অবসান ঘটিয়ে করোনা ভাইরাসের কারনে অবশেষে গত ১৮ আগস্ট অ্যাড. তাশাদদুক হাসান স্বাক্ষরিত এক পত্রে উচ্চ আদালতের রায়ে নারায়ণপুর পৌরসভাকে বহাল রাখার ঘোষণা বিষয়ে জানা গেছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ফাহমিদ হক জানান, রায়ের একটি পত্র পেয়েছি। তবে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের চূড়ান্ত গেজেট পাইনি।

উল্লেখ্য, হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি নাঈমা হায়দার রাজিক আল দলিলের বেঞ্চে নারায়ণপুর ইউনিয়নের পক্ষে দায়ের করা মামলা খারিজ করে পৌরসভা বহাল রেখে এই রায় গত ১০ জানুয়ারি ঘোষণা করা হয়। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন ডেপুটি এটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার ও বাদী পক্ষের আইনজীবি ছিলেন অ্যাডভোকেট আশাদুর রউফ এবং পৌরসভার পক্ষে আইনজীবি ছিলেন এডভোকেট তাশাদদুক হাসান।

বিগত ২০১০ সালে নারায়ণপুর ইউনিয়নটিকে পৌরসভা ঘোষণা করেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। ১৫ জুলাই স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় নারায়নপুর পৌরসভা গেজেট প্রকাশ করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও)কে প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। পরে পৌরসভার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে উচ্চ আদালতে রিট আবেদন করেন নারায়ণপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জহিরুল মোস্তফা তালুকদার।

উচ্চ আদালত রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে নারায়ণপুর পৌরসভার উপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারী করেন এবং বন্ধ হয়ে যায় নারায়নপুর পৌরসভার কার্যক্রম। ২০১০ সালে পৌরসভার পক্ষে ওই ইউনিয়নের আবু তাহের মিয়াজী, জিলন পাটোয়ারী ও জাকির মজুমদার সরকারের পক্ষ হয়ে উচ্চ আদালতে রিট আবেদন করেন। ঐ বছরের ১৫ জানুয়ারি স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় নারায়ণপুর পৌরসভা ওই মামলার আলোকে ১০ জানুয়ারি ২০২১ নারায়নপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জহিরুল মোস্তফা তালুকদারের রিট আবেদন খারিজ করে নারায়নপুর পৌরসভা বহাল রেখে রায় ঘোষণা করেন।

নারায়নপুর বাসিন্দা বিল্লাল হোসেন ও জুয়েল রানা জানান, নারায়নপুরকে পৌরসভা ঘোষণায় আমরা আনন্দিত। বর্তমান সরকারকে অভিনন্দন জানাই।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।