চাঁদপুরের বড়স্টেশন মোলহেড লকডাউন

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুর শহরের প্রধান পর্যটন কেন্দ্র বড়স্টেশন মোলহেডে ভ্রমণপিপাসুদের উপস্থিতি ব্যাপক হারে বেড়ে যাওয়ায় এলাকাটি লকডাউন করা হয়েছে। রোববার জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বড়স্টেশন এলাকা লকডাউন ঘোষণা করা হয় এবং সেখানে প্রবেশের পথ বন্ধ করে দেওয়া হয়। দু’দিন আগে এ নিয়ে চাঁদপুর প্রবাহে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছিল।

চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান বলেছেন, করোনা সংক্রমণ যখন শুরু হয় তখন সারাদেশের সবক’টি জেলার সাথে চাঁদপুর জেলাও লকডাউন করা হয়েছিল।

তখন কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত মতে সারাদেশের পর্যটন এলাকাগুলোর মতো চাঁদপুর জেলার পর্যটন এলাকাও লকডাউন করা হয়েছিল। যাতে পর্যটনের এসব জায়গাতে সাধারণ জনগণ অবাধে চলাফেরা না করতে পারে। এখন পর্যন্ত সারাদেশের পর্যটন স্পটগুলো বন্ধ রয়েছে।

আমাদের চাঁদপুরের প্রধান পর্যটন স্পট বড়স্টশনের মোলহেড। সেখানে আমরা লক্ষ্য করে দেখলাম, এখানে মানুষের পদাচারনা বেশি হচ্ছে। বিশেষ করে সপ্তাহের শুক্র ও শনিবারে অনেক জনগণের সমাগম লক্ষ্য করা যায়। তাই আজ থেকে পুনরায় জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান স্যারের নির্দেশে এই স্পটটি লকডাউন করা হলো।

তিনি বলেন, যেহেতু চাঁদপুরে করোনা সংক্রমণের হার দিন দিন বেড়ে চলছে সেহেতু আমাদের ধারনা হচ্ছে যে এত জনসমাগমের কারণে হয়তো করোনা সংক্রমণ আরও বাড়তে পারে। তাই আমরা আজ থেকে এই পর্যটন এলাকা বড়স্টেশন মোলহেড লকডাউন ঘোষণা করি।

তিনি আরও বলেন, আমরা চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের ভলান্টিয়ার, সাংবাদিকসহ সবাই মিলে এই এলাকার তিনটি প্রবেশ পথে বাঁশের খুঁটি লাগিয়ে দিয়ে বন্ধ করে দেই। যাতে করে এইসব প্রবেশপথ দিয়ে কোন গাড়ি বা মোটরসাইকেল চলাচল করতে পারে। যতদিন পর্যন্ত পরিবেশ স্বাভাবিক না হয় এবং পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এই পর্যটন এলাকা লকডাউন থাকবে।

এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান যাদের সাথে মাস্ক ছিল না তাদের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন এবং তাদেরকে সতর্ক করে দেয়া হয় যেন মাস্ক ব্যতিত বাসা থেকে বের না হয়।

এই কার্যক্রমের সময় উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক শাহআলম মল্লিক, সেলিম রেজা, ভলান্টিয়ারের প্রধান ওমর ফারুক, মোঃ জাহিদুল হক, মো. জাকিরসহ ভলান্টিয়ারবৃন্দ।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন