চাঁদপুরে করোনায় একই পরিবারের বাবা ও ভাই-বোনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিনিধি :
চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে একই পরিবারে বাবা ও ভাই-বোনের মৃত্যু হয়েছে। মাত্র কয়েক দিনের ব্যবধানে পরিবারের ৩জন সদস্যকে হারিয়ে স্বজনরা শোকাচ্ছন্ন। হাজীগঞ্জ পৌরসভাধীন ৬নং ওয়ার্ডের মকিমাবাদ গ্রামের সর্দার বাড়ির বাসিন্দা তারা।

গত ৫ জুন সকাল ৯টায় আব্দুল আউয়াল (৫০) করোনার উপসর্গ নিয়ে নিজ বাড়িতে মারা যান। এরপর ১২ জুন সকাল ৯টায় তার বাবা আবুল কাশেম প্রকাশ লেদা মিয়াও (৭৫) করোনার উপসর্গে মৃত্যুবরণ করেন।

গত ১৪ জুলাই আবদুল আউয়ালের বড় বোন কামরুননাহার (৫০) করোনার উপসর্গে মৃত্যুবরণ করেন। তার জ্বর ও শ্বাস কষ্ট দেখা দিলে শাহমিরান হাসপাতালে আনলে হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার কামরুননাহারকে মৃত্যু ঘোষণা করেন। ১৮ জুলাই তার করোনা রিপোর্ট পজেটিভ আসে।

মৃত আব্দুল আউয়াল রুবেল হাজীগঞ্জ পৌর যুবদলের আহ্বায়ক পদে দায়িত্বরত ছিলেন। তিনি গত ৪ জুন করোনা পরীক্ষায় হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা জমা দিয়ে আসেন। এর পরদিন ৫ জুন সকালে তিনি মারা যান।

একই উপসর্গে শুক্রবার সকালে তার বাবাও মারা যান। মৃত আব্দুল আউয়াল হাজীগঞ্জ পৌরসভাধীন ৬নং ওয়াড মকিমাবাদ গ্রামের সর্দার বাড়ির বাসিন্দা। আবদুল আউয়ালের করোনা রিপোর্ট পজেটিভ এসেছিল।

মাত্র এক সপ্তাহে বাবা-ছেলের মৃত্যুর পর এক মাসের ব্যবধানে একই পরিবারের আরেকজনের মৃত্যুতে নিহতের পরিবার, নিকট আত্মীয়-স্বজন, পাড়া-প্রতিবেশীসহ নিজ গ্রাম মকিমাবাদ এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এইচ এম শোয়েব আহমেদ চিশতী জানান, ১৮ জুলাই পর্যন্ত হাজীগঞ্জে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ১৪১জন। এর মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছে ১৭জন। সুস্থ হয়েছে ৬০জন।

শুধু ১৮ জুলাই হাজীগঞ্জে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মৃত কামরুন নাহারসহ ৬জন। এর মধ্যে ১জন স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে পৌরসভার ৩জন ও ইউনিয়নের ৩জন।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন