চাঁদপুরে করোনা রোগী বাড়ছে : একদিনে শনাক্ত ১৬জন

লায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২৪০২ : মতলব উত্তরে আক্রান্ত বেড়ে ২০০

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুর জেলায় করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্তের হার দীর্ঘদিন কম থাকার পর আবারও বাড়তে শুরু করেছে। গত ক’দিন ধরে এই বৃদ্ধির হার লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

রোববার (১ নভেম্বর) একদিনে শুধুমাত্র চাঁদপুর সদর উপজেলায় আরো ১০জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে সদর উপজেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৯৭৯জন।

এ দিন সারা জেলায় করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে মোট ১৬জন। এর মধ্যে চাঁদপুর সদরের ১০জন, মতলব উত্তরের ২জন, মতলব দক্ষিণের ১জন, হাজীগঞ্জের ২জন ও শাহরাস্তির ১জন রয়েছেন।

একই দিনে করোনা থেকে মুক্ত তথা সুস্থ ঘোষণা করা হয়েছে ১০জনকে। এর মধ্যে চাঁদপুর সদরের ৫জন, হাজীগঞ্জের ২জন, মতলব দক্ষিণের ২জন ও ফরিদগঞ্জের ১জন।

এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ২৪০২জন। এর মধ্যে মৃতের সংখ্যা ৭৮জন। সুস্থ হয়েছেন ২২৪১জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন আছেন ৮৩জন। সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

সূত্র জানায়, রোববার (১ নভেম্বর) চাঁদপুরস্থ ভাষাবীর এম এ ওয়াদুদ আরটি-পিসিআর ল্যাব থেকে মোট ৫৬টি রিপোর্ট আসে। এর মধ্যে করোনা পজেটিভ ১৬টি। বাকী ৪০টি রিপোর্ট করোনা নেগেটিভ।

চাঁদপুর জেলায় বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত ২৪০২জনের উপজেলাভিত্তিক পরিসংখ্যান হলো : চাঁদপুর সদরে ৯৭৯জন, ফরিদগঞ্জে ২৭৩জন, মতলব দক্ষিণে ২৬৭জন, শাহরাস্তিতে ২৩৩জন, হাজীগঞ্জে ২০৫জন, মতলব উত্তরে ২০০জন, হাইমচরে ১৬০জন ও কচুয়ায় ৮৫জন।

জেলায় মোট ৭৮জন মৃতের উপজেলাভিত্তিক পরিসংখ্যান হলো : চাঁদপুর সদরে ২৩জন, হাজীগঞ্জে ১৭জন, ফরিদগঞ্জে ১১জন, মতলব উত্তরের ১০জন, শাহরাস্তিতে ৭জন, কচুয়ায় ৬জন, মতলব দক্ষিণে ৩জন ও হাইমচরে ১জন।

চাঁদপুর সদর উপজেলায় নতুন আক্রান্ত যারা : শহরের বিপণীবাগের মহিলা (২৩), নাজিরপাড়ার মহিলা (৩৪), হাজী মহসিন রোডের মহিলা (৫০) ও পুরুষ (৫০), রেলওয়ে ১৪ কোয়ার্টার এলাকার পুরুষ (২৭), ভাষাবীর এম এ ওয়াদুদ আরটি-পিসিআর ল্যাবের পুরুষ (৩০), ট্রাকরোডের পুরুষ (৬৮), ওয়াপদা গেট এলাকার মহিলা (৪৮), মিশন রোডের পুরুষ (৬৫) এবং শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নের লোদেরগাঁ এলাকার পুরুষ (৫৫)।

চাঁদপুর সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সাজেদা বেগম পলিন রোববার চাঁদপুর প্রবাহকে বলেন, গত কিছুদিন ধরে চাঁদপুরে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। শীতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধির আশঙ্কা রয়েছে। সে কারণে আক্রান্তের সংখ্যাও বাড়তে পারে। তবে দেশে করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ধাপ শুরু হয়েছে কিনা তা এখনি বলা যাচ্ছে না। আরো কিছু দিন পর বিষয়টি পরিষ্কার হবে।

চাঁদপুর সরকারি জেনারেল (সদর) হাসপাতালের আরএমও ও করোনা বিষয়ক ফোকালপার্সন ডা. সুজাউদ্দৌলা রুবেল রোববার চাঁদপুর প্রবাহকে বলেন, চাঁদপুরে সম্ভবত করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ধাপের দিকে এগুচ্ছে। গত ২ দিনে হঠাৎ আক্রান্তের সংখ্যা অনেক বেড়ে গেছে।

তিনি আরো বলেন, নমুনা দেওয়ার সংখ্যাও হঠাৎ বেড়েছে। রোববার একদিনে ৬৬জন নুমনা দিয়েছেন সদর হাসপাতালে। সারা জেলায় রোববার নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ৭৬টি। এর মধ্যে ১৩টি করোনা পজেটিভ বলে জেনেছি। সোমবার অবশ্য এই রিপোর্ট প্রকাশ করা হবে। সার্বিক পরিস্থিতি উদ্বেগজনক বলে মন্তব্য করেন তিনি।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।