চাঁদপুরে কুকুরের কামড়ে আহত ১০ : ৩জনকে ঢাকায় প্রেরণ

নিজস্ব প্রতিনিধি :
চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলায় বুধবার বিকেলে পাগলা কুকুরের কামড়ে ১০জন গুরুতর আহত হয়েছে। উপজেলার এনায়েতনগর, বারোহাতিয়া, রসুলপুর, শাহাবাজকান্দি ও সানাতারকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এলাকায় কুকুরের আতঙ্ক বিরাজ করছে।

কুকুরের কামড়ে আহতরা হলেন বারোহাতিয়া গ্রামের অনিক মিয়া (১৮), রহিমা বেগম (৬০), আলেকজান বেগম (৮০), ও সাকিব হোসেন (৬২), এনায়েতনগর গ্রামের ফারজানা আক্তার (৮) ও রাফাত মিয়া (১০), শাহাবাজকান্দি গ্রামের মাকসুদা বেগম (৫০) ও মিজানুর রহমান (৬০), সানাতারকান্দি গ্রামের মো. সরাফউদ্দিন (১৭) এবং রসুলপুর গ্রামের আলফু দেওয়ান (৪০)।

আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে মতলব দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। তাদের মধ্যে তিন জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

হাসপাতাল ও এলাকাবাসী জানায়, পাগলা কুকুরটি লোকজনের পা, কোমর, পিঠ ও বুকে এলোপাথারি কামড়াতে থাকে। তাঁদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন লাঠিসোঁটা নিয়ে ঘটনাস্থলে এসে ধাওয়া করলে পাগলা কুকুরগুলো দৌড়ে পালিয়ে যায়।

বারোহাতিয়া গ্রামের রহিমা বেগম জানান, বসতঘরের সামনে কাজ করছিলেন। হঠাৎ ১টি পাগলা কুকুর ঘেউ ঘেউ করতে করতে তাঁর ওপর ঝাপিয়ে পড়ে। পা, কোমর ও পিঠে কামড়াতে থাকে এলোপাতাড়ি। এসব স্থান রক্তাক্ত জখম হয়। এ সময় পরিবারের লোকজন লাঠি নিয়ে এগিয়ে এলে কুকুরগুলো দৌড়ে চলে যায়। এ সময় গোটা এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। কুকুর থেকে বাঁচার জন্য মাইকিংও করা হয়। চিকিৎসা নেওয়ার পর এখন কিছুটা সুস্থ আছেন। তবে ক্ষত স্থানে প্রচন্ড ব্যথা হচ্ছে।

মতলব দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা রাজিব কিশোর বণিক বলেন, তাঁর হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ওই ১০ জনকে র‌্যাবিক্স-ভি ইনজেকশন দেওয়া হয়েছে। তিনজনকে ঢাকায় পাঠানো (রেফার) হয়েছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন