চাঁদপুরে জমকালো আয়োজনে প্রাণের উচ্ছ্বাসে ‘৯৭/’৯৯ ব্যাচের মিলনমেলা উদযাপন

শাওন পাটওয়ারী :
চাঁদপুর জেলার এসএসসি-৯৭ ও এইচএসসি-৯৯ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের প্রথম মিলনমেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার (১৮ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চাঁদপুর শহরের ইলিশ চত্বর থেকে এ উপলক্ষে একটি বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি শহরের স্টেডিয়াম রোড ও কুমিল্লা রোড হয়ে একই স্থানে এসে শেষ হয়।

করোনা পরিস্থিতিতে সচেতনতার লক্ষ্যে স্যানিটাইজার ও মাস্ক বিতরণ, রক্তদান কর্মসূচি এবং ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পসহ নানা কর্মসূচি পালিত হয় এই মিলনমেলায়। ‌’প্রকৃত বন্ধুত্ব চিরকালের’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে আয়োজিত এই আনন্দ আয়োজনে চাঁদপুর জেলার বিভিন্ন উপজেলার স্কুল ও কলেজ ছাড়াও ঢাকা, চট্টগ্রাম, বগুড়া, নোয়াখালী, গাজীপুরসহ বিভিন্ন জেলার ৮ শতাধিক প্রাক্তন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

মিলনমেলায় ১২টায় টেলিকনফারেন্সে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর-৩ আসনে সংসদ সদস্য ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এ সময় তিনি তার বক্তব্যে বলেন, সারা বাংলাদেশ থেকে ‘৯৭/’৯৯ ব্যাচের শিক্ষার্থীরা প্রিয় চাঁদপুরে এসেছেন আপনাদের অভিনন্দন। এত সুন্দর একটি অনুষ্ঠানে নিজে উপস্থিত থাকতে পারলে খুশি হতাম। কিন্তু আপনারা জানেন আমি করোনায় আক্রান্ত। অনেক সর্তক থাকা সত্ত্বেও করোনায় আক্রান্ত হয়েছি। সবাই সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখবেন। অনেক বিদখুটে রোগ এটি।

তিনি আরো বলেন, আমি এ ব্যাচের সাফল্য কামনা করি। এ ব্যাচের মাধ্যমে সমাজ ও দেশের জন্য অনেক ভালো ভালো কাজ হবে- এই প্রত্যাশা করি। মুজিববর্ষ চলছে। মুজিবের আর্দশে আপনারা এগিয়ে যাবেন। মৌলবাদীদের আস্ফালন বন্ধ করতে হবে। আমাদের ভাষা, সাহিত্য, সংস্কৃতির উপর আঘাত করা সহ্য করা হবে না। ধর্মের নামে সারা জীবন এই বাঙালিকে শোষণ করা হয়েছে। আমরা ধর্ম ভীরু কিন্তু ধর্মান্ধ নই। এরা যেন মাথাচারা দিয়ে না উঠতে পারে সে ব্যাপারে সজাগ থাকতে হবে।

শান্তির প্রতীক পায়রা উন্মুক্ত আকাশে অবমুক্ত করে পুনর্মিলনীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র ও চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. জিল্লুর রহমান জুয়েল। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, চাঁদপুর পৌর এলাকাকে নতুনভাবে গড়তে পুরনো অনেক কিছু ভাঙতে হবে। এ ক্ষেত্রে কোনো অনিয়ম সহ্য করা হবে না। বাসযোগ্য নান্দনিক শহর গড়তে সবার সহযোগিতা প্রয়োজন। তিনি আরো বলেন, এই ব্যাচের শিক্ষার্থীদের ঐক্যবদ্ধ প্রয়াসে সমাজ ও দেশের জন্য অনেক ভালো কিছু করা সম্ভব। আপনাদের আনন্দ অন্যান্য মানুষের মাঝেও ছড়িয়ে দিতে পারেন জনকল্যাণমুখী বিভিন্ন কর্মকান্ডের মাধ্যমে।

বন্ধুদের মিলনমেলা উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক ডা. তানভীর আহমেদ মিয়া আরিফের সভাপতিত্বে ও সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম বাবুর পরিচালনায় উদ্বোধনী পর্বে আরো বক্তব্য রাখেন দৈনিক চাঁদপুর প্রবাহের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ও প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি রহিম বাদশা, উদযাপন পরিষদের সদস্য সচিব শুভাশীষ ঘোষ (শ্রীগুরু)। স্বাগত বক্তব্য রাখেন উদযাপন পরিষদের প্রধান সমন্বয়কারী আবুল বারাকাত লিজন পাটওয়ারী।

জীবন-জীবিকার তাগিদে দূর-বহুদূরে থাকলেও এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে একত্রিত হয়ছেন উল্লেখিত ব্যাচের শিক্ষার্থীরা। মোবাইল ফোনে সেলফি তোলা, ছোট ছোট গ্রুপে আড্ডা, আনন্দ ও উল্লাসে মেতে উঠেন সকলেই। চাঁদপুর স্টেডিয়ামের গ্যালারি ও অনুষ্ঠানস্থল খুবই আনন্দঘন পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের মধ্যে ছিল বিভিন্ন ধরণের খেলাধুলা, স্মৃতিচারণ, স্থানীয় শিল্পীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, সন্ধ্যা ও রাতে আতশবাজি। সবশেষে রাতে ঢাকার ‘আভাস’ ব্যান্ডের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে উৎসবের পর্দা নামে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন