চাঁদপুর-ঢাকা-নারায়নগঞ্জ রুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুর-ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে যাত্রীবাহী লঞ্চ চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-চলাচল কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)। করোনা সংক্রমণরোধে ঢাকার পাশ্ববর্তী ৭টি জেলা লকডাউনের পর এই সিদ্ধান্ত নিল বিআইডব্লিউটিএ। মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। তবে চাঁদপুর-হাটুরিয়া-ডামুড্ডা ও চাঁদপুর-নড়িয়া নৌ-পথে লঞ্চ চলাচল করবে। অন্যদিকে ঢাকার সাথে সব রুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ থাকায় ঢাকা-চাঁদপুর-দক্ষিণাঞ্চল রুটের লঞ্চগুলোও চলাচল করবে না।

সোমবার রাতে এ তথ্য জানিয়েছেন চাঁদপুর বিআইডাব্লিটিএ’র বন্দর কর্মকর্তা মো. কায়সারুল ইসলাম। তিনি বলেন, ঢাকা-চাঁদপুর-নারায়নগঞ্জ রুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। রাত ১১টার দিকে আমাকে ঢাকা থেকে এ তথ্য জানানো হয়। এর ফলে মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে ঢাকা-চাঁদপুর, নারায়ণগঞ্জ-চাঁদপুর রুটে সকল যাত্রীবাহী লঞ্চ চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে চাঁদপুর থেকে হাটুরিয়া, ডামুড্ডা ও নড়িয়াতে লঞ্চ চলাচল করবে। চাঁদপুর থেকে এ রুটে ২টি লঞ্চ চলাচল করবে। বন্ধ থাকবে বরিশালসহ দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলার সাথে চাঁদপুর হয়ে ঢাকা চলাচলকারী লঞ্চগুলো।

তিনি আরো বলেন, চাঁদপুর-ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে অর্ধশতাধিক লঞ্চ চলাচল করে। এসব নৌরুটে যেসব লঞ্চ চলাচল করতো তা সম্পূর্ণ বন্ধ করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। চাঁদপুর-মুন্সিগঞ্জ রুটে ১ বা ২টি লঞ্চ চলাচল করে। এছাড়া ঢাকা-চাঁদপুর রুটের যেসব লঞ্চ ভায়া মুন্সিগঞ্জ হয়ে চলাচল করে সেগুলো আসা-যাওয়ার পথে মুন্সিগঞ্জ থেকে কোন কোন যাত্রী উঠানামা করতো। এখন ওই রুটে লঞ্চ চলাচলই করবে না।

লকডাউন ঘোষিত ৭ জেলার যাত্রীবাহী লঞ্চ চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-চলাচল কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)। দেশের অন্যান্য অঞ্চল থেকে ছেড়ে আসা লঞ্চগুলো এই জেলার অভ্যন্তরীণ কোনও লঞ্চ ঘাটে ভিড়তে পারবে না বলেও জানানো হয়েছে। সোমবার প্রতিষ্ঠানটির নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা পরিচালক মুহাম্মদ রফিকুল ইসলামের সই করা এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, দেশে করোনা পরিস্থিতি সংক্রমণ বৃদ্ধি এবং মৃত্যুর হার বেড়ে যাওয়ায় সাতটি জেলায় লকডাউন ঘোষণা করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী মানিকগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, গাজীপুর, মাদারীপুর, রাজবাড়ী, গোপালগঞ্জ জেলার সার্বিক কার্যাবলী (জনসাধারণের চলাচলসহ) আগামী ২২ জুন সকাল ৬টা হতে ৩০ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। নির্দেশনা অনুযায়ী উল্লেখিত জেলাগুলোর নৌপথে যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ রাখার জন্য নির্দেশ দেওয়া হলো।

নৌপথগুলো হচ্ছে : ঢাকা-মাদারীপুর, ঢাকা-মিরকাদিম/ মুন্সীগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ মুন্সিগঞ্জ/ চাঁদপুর/ নড়িয়া, শিমুলিয়া (মুন্সীগঞ্জ) – বাংলাবাজার (মাদারীপুর) / মাঝিকান্দি (শরিয়তপুর), আরিচা (মানিকগঞ্জ)-কাজিরহাট, পাটুরিয়া (মানিকগঞ্জ) দৌলতদিয়া (রাজবাড়ী)। এই নৌপথসহ উল্লেখিত জেলার সংশ্লিষ্ট নৌপথে সব ধরণের যাত্রীবাহী নৌযানের (লঞ্চ/ স্পিডবোট/ ট্রলার/ অন্যান্য) বন্ধ থাকবে।

এতে আরও বলা হয়, এ নির্দেশনার আলোকে উল্লেখিত জেলাগুলোর লঞ্চঘাট ব্যতীত দেশের যে কোনও স্থান হতে ছেড়ে যাওয়া যাত্রীবাহী নৌযানগুলো পথিমধ্যে মাদারীপুর, পাটুরিয়া, দৌলতদিয়া, আরিচা, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, মিরকাদিম লঞ্চঘাটগুলোতে ছাড়া বা ভিড়া করতে পারবে না। পণ্য পরিবহন এবং জরুরি সেবা প্রদানকারী নৌযানের ক্ষেত্রে এই আদেশ কার্যকর হবে না।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।