ফরিদগঞ্জে ৫ বছরের শিশু যৌন নিপীড়নের শিকার

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুরে মাদ্রাসার ছাত্র কর্তৃক জোরপূর্বক ৫ বছরের শিশুকে তুলে নিয়ে যৌন নিপীড়ন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধার করে তার পরিবারের স্বজনরা চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করায়।

বৃহস্পতিবার রাতে চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার টোরা মুন্সিরহাট শাচনমেঘ মিজি বাড়ির পাশের গভীর জঙ্গলে এই ঘটনাটি ঘটে।

শিশুটির মা বৃহস্পতিবার রাতে নবজাতক শিশুর জন্ম দেওয়ায় সেই সুযোগে শিশুটিকে বাড়ির সামনে থেকে তুলে নিয়ে মাদ্রাসার ছাত্র সজীব তাকে যৌন নিপীড়ন করেছে বলে অভিযোগ করেন তার স্বজনরা।

যৌন নিপীড়নের শিকার হওয়া শিশুটির ফরিদগঞ্জ উপজেলার চান্দ্রা ইউনিয়নের খারখাদিয়া গ্রামের।

শিশুর মা অভিযোগ করে বলেন, টোরা মুন্সিরহাট এলাকার জাকির হোসেনের ছেলে চাঁদপুর স্বর্ণখোলা মাদ্রাসার ছাত্র সজীব (১৫) সাইকেল নিয়ে সন্ধ্যার পর বাড়ির সামনে দিয়ে যাওয়ার পথে শিশুটিকে দেখতে পেয়ে সাইকেলের পিছনে উঠিয়ে পাশে গভীর জঙ্গলে নিয়ে যায়।

সেখানে নিয়ে যৌন নিপীড়ন করে। শিশুটি ডাক চিৎকার দিলে সজীব রাস্তায় পালিয়ে যায়। পরে শিশুটিকে স্বজনরা তাকে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে।

এ বিষয়ে মাদ্রাসার ছাত্র সজীবের বাবা মোশারফ মুঠোফোনে বলেন, ছেলে সজীব সাইকেল নিয়ে যাওয়ার পথে শিশুটি সাইকেলের পিছনে উঠলে নিচে পড়ে গিয়ে আহত হয়। এই কারণে তার রক্তক্ষরণ হয়েছে, যৌন নিপীড়ন তাকে করা হয়নি।

চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানায়, শিশুটির যৌনাঙ্গ দিয়ে ব্যাপক রক্তক্ষরণ হওয়ায় তাকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। শিশুটিকে যৌন নিপীড়ন করার কারণেই এই ঘটনাটি ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

শিশু যৌন নিপীড়নের ঘটনায় অভিযুক্ত মাদ্রাসার ছাত্র সজীবের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানিয়েছেন তার পরিবারের স্বজনরা।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন