হাজীগঞ্জে আওয়ামী লীগ-বিএনপি সংঘর্ষ : আহত তিন : ৭ বিএনপি নেতা আটক

খালেকুজ্জামান শামীম :
অবরোধের প্রথম দিনে হাজীগঞ্জ উপজেলার সেন্দ্রা বাজারে আওয়ামী লীগ-বিএনপির সংঘর্ষে স্থানীয় আওয়ামী লীগ সভাপতিসহ তিনজন আহত হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ৯টার সময় হাজীগঞ্জ-রামগঞ্জ সড়কের সেন্দ্রা বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় বিএনপি-আওয়ামী লীগের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের সভাপতি আলাউদ্দিন মুন্সী, আওয়ামী লীগ নেতা আহসান হাবীবসহ তিনজন আহত হয়েছে। পরে হাজীগঞ্জ থানা পুলিশের তৎপরতায় পরিস্থিতি শান্ত হয়।

স্থানীয়রা জানায়, সকাল ৯টার দিকে বিএনপি কর্মীরা হাজীগঞ্জ-রামগঞ্জ সড়কে অবস্থান নেয়। এ সময় তারা মিছিল ও পিকেটিং করে। এক পর্যায়ে সড়কে যানবাহন বন্ধ হয়ে যায়। তারপর স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরাও তা প্রতিরোধ করতে আসে। এরই মধ্যে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ তৈরি হয়। ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে হাজীগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি শান্ত করে যান চলাচল স্বাভাবিক করে।

এদিকে নাশকতা এড়াতে গত ২৪ ঘন্টায় হাজীগঞ্জে বিএনপির ৭ নেতা-কর্মীকে আটক করেছে হাজীগঞ্জ থানা পুলিশ। হাজীগঞ্জ থানার ওসি আব্দুর রশিদ জানান, নাশকতা এড়াতে ৭ বিএনপি নেতা-কর্মী কে আটক করা হয়।

আটককৃতরা হচ্ছেন- হাজীগঞ্জ পৌর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম ভুট্টু, উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আক্তার হোসেন দুলাল, পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব মুজিবুর রহমান, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা আরাদিন লারা, যুবদল নেতা শাহ আলম ও ইমাম হোসেন। তাদেরকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত হাজীগঞ্জ উপজেলার আর কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

শেয়ার করুন