১২ থেকে ১৭ বছরের শিক্ষার্থীদের টিকার আওতায় আনার প্রস্তুতি প্রায় শেষের দিকে : শিক্ষামন্ত্রী

শরীফুল ইসলাম :
করোনার কারণে বিলম্বে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীদের ক্ষতির বিষয়টি দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) সকালে চাঁদপুর হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে এইচএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন ও আলআমিন স্কুল এন্ড কলেজে শিক্ষার্থীদের করোনা টিকার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ১২ থেকে ১৭ বছরের শিক্ষার্থীদের টিকার আওতায় আনার প্রস্তুতি প্রায় শেষের দিকে। ২২ লাখ পরীক্ষার্থীকে কতো দ্রুত সময়ের মধ্যে করোনার টিকা দেওয়া যেতে পারে তার কাজও চলছে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের অভিনন্দন জানাই, আমরা পরীক্ষাটি নিতে পেরেছি। শিক্ষার্থীদের যা ক্ষতি হয়েছে, পরবর্তীতে তা আমরা সমন্বয় করব। আশা করি কারো অসুবিধা হবে না।

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, ২২ লক্ষ শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার সুযোগ ছিল না। এখনো দেশের প্রতিটি জেলায় পাইজারের টিকা দেওয়ার পরিস্থিতি নেই। তারপরও আমরা অতিদ্রুত সময়ের মধ্যে ২২ লক্ষ পরীক্ষার্থীকে টিকার আওতায় নেওয়ার সর্বাত্মক চেষ্টা চলছে।

এসময় জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ, পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ, জেলা শিক্ষা অফিসার গিয়াসউদ্দিন পাটওয়ারী, চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা কুমিল্লা অঞ্চলের উপপরিচালক রোকসানা ফেরদৌস মজুমদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেডকোয়ার্টার) মঈনুল হাসান, হাসান আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুলতানা ফেরদৌস উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন