খাদ্য সামগ্রী নিয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে কামরুল হাসান সৌদ

নিজস্ব প্রতিবেদক :
বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদ চাঁদপুর জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও ফরিদগঞ্জ পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কামরুল হাসান সৌদ করোনায় বেকার হয়ে পড়া ও খাদ্য সংকটে থাকা পরিবারগুলোকে তাদের ঘরে ঘরে যেয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন। গত ক’দিন ধরে তার এই মানবসেবার কার্যক্রম চলছে। প্রতিদিন ফরিদগঞ্জ উপজেলা ও ফরিদগঞ্জ পৌরসভার কোনো না কোনো এলাকায় খাদ্য সহায়তা নিয়ে যাচ্ছেন তিনি। উপজেলা ও পৌরসভার দশ সহস্রাধিক মানুষকে খাদ্য সহায়তা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে মাঠে নেমেছেন তিনি।


করোনার কারণে বেকার হয়ে পড়া দিনমজুর ও পরিস্থিতির শিকার মানুষদের হাতে কামরুল হাসান সৌদ তুলে দিচ্ছেন খাবার সামগ্রী। তার বিতরণকৃত খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে- চাল, ডাল, আলু, পেঁয়াজ, তেল, সাবান, হ্যান্ডওয়াশ, মাস্ক্ প্রভৃতি। বিপদে তার খাদ্য সহায়তা পেয়ে খুশি সাধারণ মানুষ। ব্যক্তিগত অর্থায়ন থেকে এসব খাদ্য বিতরণ করছেন তিনি।


কামরুল হাসান সউদ বলেন, করোনা আন্তর্জাতিক মহামারিতে রূপ নিয়েছে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে সরকার সারাদেশে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে এবং মানুষজনকে ঘরে থাকার নির্দেশ দিয়েছে। করোনার সংক্রমণ রোধে এটা যথাযথ পদক্ষেপ। কিন্তু এতে অনেক মানুষ খাদ্য সংকটে পড়েছে। সরকারিভাবে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু ভুক্তভোগী সবাইকে সেই সুবিধার আওতায় আনা সম্ভব নয়। আমিও আমার ক্ষুদ্র সামর্থ্য অনুযায়ী মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করছি।

তিনি আরো বলেন, করোনা প্রতিরোধে আমাদের সকলকে সচেতন থাকতে হবে এবং সকল বিত্তবান ব্যক্তিবর্গকে দলমত নির্বিশেষে একত্রিত হয়ে গরীব দিনমজুরদের পাশে দাঁড়াতে হবে। সবাই যাতে এই করোনার আক্রমণ থেকে রক্ষা পায় সে জন্য মহান আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করছি।


এদিকে খাদ্য সহায়তা দেওয়ার পাশাপাশি ফরিদগঞ্জ বাজারে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণে উপজেলা প্রশাসনের সাথে ব্যাপক কর্মকান্ড করেছেন কামরুল হাসান সউদ। তার এসব কর্মকান্ড জনগণের প্রশংসা পাচ্ছে।


খোদ ফরিদগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিউলি হরি তার পেইজবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে কামরুল হাসান সউদকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তিনি স্ট্যাটাসে লিখেন- ‌‌‌’ভাল কাজ সবসময় অনুকরণীয়। জেলা প্রশাসক মহোদয়ের নির্দেশে আজ ফরিদগঞ্জ বাজারের বিভিন্ন নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য ও ঔষধের দোকানের সামনে ক্রেতাদের মাঝে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য এ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। ধন্যবাদ হাজী কামরুল হাসান সউদকে সার্বিক সহযোগিতা করার জন্য। আমার অবদান শুধু এটুকু যে আমি তাকে উৎসাহ দিতে পেরেছি। খুব সহজে এ কাজটি করা যায়। প্রত্যেকে যার যার অবস্থান থেকে ফরিদগঞ্জ এর সকল বাজারে এ ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারেন। নিজে সচেতন হোন। অন্যকে সচেতন করুন।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন