‘আমরা ছেলেদের দেখে রাখি না বলেই মেয়েদের দেখে রাখতে হয়’

বিশেষ প্রতিনিধি
হাইমচর উপজেলার চরভৈরবী ইউনিয়নে বিট পুলিশিং সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় ইউনিয় পরিষদ চেয়ারম্যান আহমেদ আলী মাস্টারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার স্নিগ্ধা সরকার।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, বিট পুলিশিং এর উদ্দেশ্যে হচ্ছে আমরা যাতে সকলের কাছাকাছি থাকি। এ এলাকায় ডাকাতি হলো কিংবা কোন সমস্যা হলো সে অপরাধীকে খুঁজে বের করাটা যতটা সহজ, আপনার যে সমস্যাটা সেটা আমার কাছে চলে আসাটাও সহজ।

তিনি বলেন, আমরা খুব তারাতারি জানতে পাবো কোথায় সমস্যাটা হচ্ছে। সমস্যা সমাধানের মাধ্যমে আমাদের সেবাটা সহজেই আপনাদের কাছে পৌছে দেয়াই হচ্ছে বিট পুলিশিং। আর এটাই হচ্ছে বিট পুলিশিং এর উদ্দেশ্য।

তিনি আরো বলেন, বাল্যবিবাহ একটি বড় ধরনের সমস্যা। অল্প বয়সী একটি মেয়ে রাস্তা দিয়ে চলাচল কিংবা স্কুলে আসা যাওয়ার সময় ইভটেজিং এর শিকার হয়। মেয়ের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে হয়তো কম বয়সে তাকে বিয়ে দিয়ে দেন। একটি সমস্যা সমাধান করতে গিয়ে আপনি মেয়েটির সারা জীবনের জন্য আরও বড় বড় কয়েকটি সমস্যার সৃষ্টি করে দেন।

স্নিগ্ধা সরকার বলেন, আমরা আমাদের মেয়েদের শুধু ঘরে রাখতে হবে তা কিন্তু নয়, ছেলেদেরকেও ঘরে রাখতে হবে। তাদের প্রতি নজর রাখতে হবে। আমরা ছেলেদের দেখে রাখি না বলেই মেয়েদের দেখে রাখতে হয়। আমাদের ছেলেদের যদি দেখে রাখি তাহলে অনেক সমস্যার সমাধান হয়ে যায়। মাদক, ইভটেজিং, চিন্তাই কারা করে? আমাদের ছেলেরাই করে। আমাদের ছেলেদের দেখে রাখতে পারলেই সমাজের অপরাধগুলে কমে আসবে।

মঙ্গলবার সকালে চরভৈরবী ইউনিয়ন পরিষদে বিট পুলিশিং কার্যালয়ে হাইমচর থানা এএসআই প্রানকৃষ্ণের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন হাইমচর থানা অফিসার ইনচার্জ মো. জহিরুল ইসলাম খাঁন। এ সময় বক্তব্য রাখেন ইউপি সদস্য ফারভেজ হাওলাদার, নাজমা বেগম, লায়লা আঞ্জুমারা বানু।

এ সময় উপজেলা পরিষদ সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান এসএম কবির, বিট অফিসার এসআই নাজমুল হোসেন, বিভিন্ন ওয়ার্ডের ইউপি সদস্যসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন