করোনায় কচুয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের পিতার মৃত্যু

সুজন পোদ্দার :
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন কচুয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহজাহান শিশিরের বাবা ছায়েদ আলী মিয়াজী (ইন্নালিল্লাহি……রাজেউন)। সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় মুগদা সরকারি হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর। মৃত্যুকালে মরহুম ছায়েদ আলী চার ছেলে, এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজেটিভ আসার পর গত ৩০ এপ্রিল মুগদা সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল ছায়েদ আলীকে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার সন্তান কচুয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহজাহান শিশির। তিনি বলেন, গত ৩০ এপ্রিল আমার বাবা অসুস্থ বোধ করলে মুগদা সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। নমুনা পরীক্ষা করার পর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। সেখানেই ১১ দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ (সোমবাবর) সকাল সাড়ে ১১টায় আমাদের সবাইকে ছেড়ে তিনি না ফেরার দেশে চলে যান।

তবে তিনি চাঁদপুরে নমুনা পরীক্ষা না করায় এবং এখানে চিকিৎসা না নেওয়ায় চাঁদপুরের করোনায় আক্রান্ত ও নিহতের পরিসংখ্যানে তার নাম নেই বলে সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা গেছে।

তিনি ঢাকার মালিবাগে নিজ বাসায় বসবাস করতেন। তিনি ছিলেন একজন অবসরপ্রাপ্ত সরকারি চাকুরিজীবী। মিষ্টভাষী, সদালাপী এই সামাজিক লোকটির মৃত্যুতে মালিবাগ কলোনী, কচুয়ার আশ্রাফপুর ইউনিয়নের নিজ বাড়ি জগৎপুরসহ সমগ্র কচুয়া উপজেলায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
তার মৃত্যুতে শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেছেন সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষনা বিষয়ক সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ, সাবেক এনবিআর চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন, শাহবাগ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি জিএম আতিকুর রহমান, কচুয়া প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আইয়ুব আলী পাটওয়ারী ও সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন চৌধুরী সোহাগ, পৌর মেয়র নাজমুল আলম স্বপন, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আকতার হোসেন সোহেল ভূঁইয়া ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল আজিজ শাহীনসহ সকল ইউপি চেয়ারম্যানবৃন্দ। তারা গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন