করোনায় বুয়েটের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তার মৃত্যু : মতলব উত্তরে দাফন

খান মোহাম্মদ কামাল :
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বুয়েটের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জসিম উদ্দিন সরকার (৬৭) মারা গেছেন। চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ছেংগারচর পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের উত্তর শিকিরচর গ্রামের নিজ বাড়িতে তাকে দাফন করা হয়েছ।

সোমবার (৮ জুন) সকাল ১০টার সময় ঢাকার উত্তরার রিগান নামের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। তিনি তিন কন্যা সন্তানের জনক ছিলেন।

সোমবার (৮ জুন) রাতে মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা ডা. নুশরাত জাহান মিথেন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, জসিম উদ্দিন ঢাকায় থাকেন। সেখানেই তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তবে তার লাশ দাফন হয়েছে তার জন্মভূমি নিজ গ্রামের বাড়িতে।

সোমবার রাত ৯টা ৪০ মিনিটের সময় তার লাশ অ্যাম্বুলেন্সে গ্রামের বাড়িতে আনা হয়। রাত ৯টা ৫০ মিনিটের সময় পৌরসভার উত্তর শিকিরচর ঈদগাহ ময়দানে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরুত্ব বজায় রেখে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

এরপর তাদের পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। তবে তার জানাজা ও দাফন ব্যতিত গোসলসহ দাফন-কাফনের অন্যান্য কাজ ঢাকা থেকে সম্পন্ন করে আনা হয়েছিল।

মরহুমের নামাজে জানাযাায় ইমামতি করেন ছেংগারচর পৌরসভার উত্তর শিকিরচর জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মোঃ শাহ আলম। আর তার দাফন কাজে অংশগ্রহণ করেন ঢাকার ধানমন্ডি শাখার নূরে আলো নামে একটি সংগঠন।

এদিকে বুয়েটের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও মতলব উত্তর উপজেলার উত্তর উপজেলার ছেংগারচর পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের উত্তর শিকিরচর গ্রামের জসিম উদ্দিন সরকারের নামাজে জানাজা ও দাফন কাজে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করনে অংশ গ্রহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্যকর্মী মোঃ কামাল হোসেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, জসিম উদ্দিন সরকার গত ৫-৬ দিন আগে জ্বর, সর্দি, কাশি ও শাসকষ্ট নিয়ে প্রথমে চীন মৈত্রী হাসপাতালে ভর্তি হন। সেখানে তার নমুনা পরীক্ষায় করোনার অস্তিত্ব পাওয়া যায়। এরপর থেকে তিনি ওই হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন ছিলেন।

রোববার হঠাৎ করে তার শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ার পর থেকে ধীরে ধীরে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে। রোববার রাতে ঢাকার উত্তরার রিগান নামে একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। সোমবার সকাল ১০টার সময় সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

তিনি ঢাকায় আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত ও মারা যাওয়ায় চাঁদপুর জেলার আক্রান্ত ও মৃতদের হিসেবে তার পরিসংখ্যান থাকবে না বলে জানা গেছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন