চাঁদপুরে অবৈধ কার্যক্রমের দায়ে হাসপাতাল সিলগালা : মালিকের এক বছর দন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ছেঙ্গারচর জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক কমপ্লেক্সে গাইনী সার্জন চিকিৎসক ছাড়াই সিজারিয়ান অপারেশন চলছিল দীর্ঘদিন ধরে। চিকিৎসকের পরিবর্তে অনভিজ্ঞ লোক দিয়ে চলছিল হাসপাতালের চিকিৎসা কার্যক্রম। এ নিয়ে গণমাধ্যমে লেখালেখির পর হাসপাতালটিতে অভিযান পরিচালনা করেছে মোবাইল কোর্ট।

মঙ্গলবার বিকেলে ভ্রাম্যমাণ আদালত হাসপাতালটির মালিক সুমনা আক্তারকে এক বছরের কারাদন্ড ও হাসপাতালটি সিলগালা করে দিয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার (ভ‚মি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্র্রেট আফরোজা হাবিব শাপলা। সাথে উপস্থিত ছিলেন মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নুসরাত জাহান মিথেন।

ডা. নুসরাত জাহান মিথেন বলেন, বিভিন্ন পত্রিকায় ছেঙ্গারচর জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক কমপ্লেক্সের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ হয়েছে। আমি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে হাসপাতালটিতে মোবাইল কোর্টের সাথে অভিযানে যাই। ওই হাসপাতালের লাইসেন্স দেখাতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। এছাড়া ভুয়া ডাক্তার দিয়ে হাসপাতাল পরিচালনা করার প্রমাণ পাওয়া গেছে। হাসপাতালে সিজার অপারেশনের জন্য এবং চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য পর্যাপ্ত সরঞ্জামাদি নেই।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আফরোজা হাবিব শাপলা বলেন, উল্লেখিত হাসপাতালটির লাইসেন্স নেই। ভুয়া ডাক্তার দিয়ে হাসপাতাল পরিচালনা করার অপরাধে বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল আইন ২০১০ অনুযায়ী মালিক সুমনা আক্তারকে এক বছরের কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি হাসপাতালটি অনির্দিষ্টকালের জন্য সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গাজী শরিফুল হাসান বলেন, মতলব উত্তর উপজেলায় কোন অনিয়ম ছাড় দেওয়া হবে না। অনিয়ম দুর্নীতির বিরুদ্ধে উপজেলা প্রশাসন সব সময় সোচ্চার রয়েছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন