চাঁদপুরে করোনার নতুন রিপোর্ট না আসলেও বেড়েছে মৃত, কমেছে আক্রান্ত!

চাঁদপুরে একদিনে সর্বোচ্চ ২৫জন করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার রেকর্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুরে রোববার করোনা টেস্টের নতুন কোনো রিপোর্ট আসেনি। তবে জেলায় করোনায় আক্রান্তে মৃতের সংখ্যা দু’জন বেড়েছে। তারা হলেন- হাজীগঞ্জের মকিমাবাদ এলাকার আঃ মান্নান (৮৫) ও চাঁদপুর শহরের ওয়াপদা গেইট এলাকার আবুল হোসেন (৬২)। তাদের রিপোর্ট আগে আসলেও মৃতের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়নি।

আর পূর্বের দেওয়া হিসেব থেকে আক্রান্ত কমেছে একজন। হাইমচরে শনিবার ১০জন নতুন শনাক্তকৃত বলা হলেও এর মধ্যে একটি পজেটিভ রিপোর্ট ছিল পূর্বে শনাক্তকৃত রোগীর। ফলে শনিবার সেখানে মূলত নতুন আক্রান্ত ছিল ৯জন। স্বাস্থ্য বিভাগের রিপোর্ট যাচাই-বাছাইজনিত ত্রুটির কারণে এমনটি হয়েছে। সূত্র জানিয়েছে, স্বল্পতম সময়ে ব্যাপক সংখ্যক রিপোর্ট যাচাই-বাছাই করতে যেয়ে এই ভুলটি হয়।

সংশোধনীর পর চাঁদপুর জেলায় মোট করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা কমে দাঁড়ালো ৪১২জন। এদের মধ্যে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৩৪জন। তবে আশার খবর হচ্ছে, রোববার (১৪ জুন) একদিনে জেলায় ২৫জন করোনায় আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়েছেন। এর মধ্যে চাঁদপুর সদর উপজেলার ২১জন, হাজীগঞ্জের ৩জন ও শাহরাস্তির ১জন রয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় এখন পর্যন্ত করোনায় সুস্থ হয়েছেন ১০৫জন।

চাঁদপুরে জেলায় বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত ৪১২জনের উপজেলাভিত্তিক পরিসংখ্যান হলো : চাঁদপুর সদরে ১৫৭জন, ফরিদগঞ্জে ৫০জন, হাজীগঞ্জে ৪৯জন, শাহরাস্তিতে ৪৭জন, মতলব দক্ষিণে ৩৮জন, কচুয়ায় ২৮জন, হাইমচরে ২৪জন ও মতলব উত্তরে ১৯জন। এছাড়া জেলায় মোট ৩৪জন মৃতের উপজেলাভিত্তিক পরিসংখ্যান হলো : চাঁদপুর সদরে ১১জন, হাজীগঞ্জে ৯জন, কচুয়ায় ৪জন, ফরিদগঞ্জে ৪জন, শাহরাস্তিতে ৩জন, মতলব উত্তরে ২জন ও মতলব দক্ষিণে ১জন।

সিভিল সার্জন ডা. সাখাওয়াত উল্লাহ জানান, রোববার চাঁদপুর থেকে আরো ৭০টি নমুনা পাঠানো হয়েছে ঢাকায়। এ নিয়ে প্রেরণকৃত নমুনার সংখ্যা দাঁড়ালো ৩০২০টি। রিপোর্ট এসেছে ২৪৯০টি। রিপোর্ট অপেক্ষমান ৫৩০টি।

তিনি আরো জানান, জেলায় আক্রান্ত ৪১২জনের মধ্যে ইতিমধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১০৫জন। চিকিৎসাধীন আছেন ২৭৩জন। এখন পর্যন্ত আইসোলেশনে ভর্তিকৃত রোগীর সংখ্যা ১৯৫জন। এর মধ্যে ইতিমধ্যে ছাড়পত্র পেয়েছেন ১৬৪জন। বর্তমানে আইসোলেশনে রোগীর সংখ্যা ৩১জন। এছাড়া জেলায় মোট হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তির সংখ্যা ৪৯০৫জন। এর মধ্যে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৩৬৯১জন। বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন ১২১৪জন।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন