চাঁদপুরে ঝুঁকি জেনেও ট্রেনের ছাদে হাজারো যাত্রী

শরীফুল ইসলাম :
কঠোর বিধিনিষেধের কথা শুনে দিশেহারা হয়ে পড়েছে মানুষ। বুধবার (২১ জুলাই) দেশজুড়ে উদযাপিত হয়েছে পবিত্র ঈদুল আজহা। আর ঈদের একদিন পরেই শুরু হচ্ছে কঠোর বিধিনিষেধ। পূর্বঘোষিত তারিখ অনুযায়ী শুক্রবার (২৩ জুলাই) থেকে ফের শুরু হয়ে আগামী ৫ আগস্ট পর্যন্ত চলবে। এতে করে লঞ্চ, ট্রেন ও বাসে বেড়েছে যাত্রীদের চাপ।

বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) দুপুরে চট্টগ্রাম থেকে চাঁদপুর কোর্ট স্টেশনে হাজার হাজার যাত্রী নিয়ে সাগরিকা এক্সপ্রেস ট্রেনটি আসে। ট্রেনের ভিতর থেকে শুরু করে ছাদের কানায় কানায় পরিপূর্ণ ছিলো যাত্রীরা। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ট্রেনের ছাদে করেই গন্তব্যে ছুটছেন মানুষ।

ট্রেনে করে চট্টগ্রাম থেকে চাঁদপুরে আসা যাত্রী মিনহাজ আহমেদ বলেন, ভোরে এসেও টিকিট পাইনি। তাই বিকল্প হিসেবে ট্রেনের ছাদে করেই আসতে হয়েছে। ঝুঁকি আছে কিন্তু কি করবো, আসতেতো হবেই। লকডাউনে আটকে থাকলে আমাদের থাকা খাওয়ার কষ্ট হবে। তাই বাড়ি চলে আসছি। আমার অনেকেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ছাদে করে আসছি।

চাঁদপুর রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার সোয়াইবুল শিকদার বলেন, ২৩ তারিখ থেকে সকল ট্রেন চলাচল বন্ধ। আর চাঁদপুর সাকরিকা এক্সপ্রেসই শেষ ট্রেন৷ তাই যাত্রীর চাপ বেশি। এত যাত্রীর চাপে স্বাস্থ্যবিধি মানার কথা নয়। তারপরও আমরা চেষ্টা করছি, যাতে মাস্ক পড়া ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা হয়।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন