চাঁদপুরে মাদ্রাসা পড়ুয়া অষ্টম শ্রেণীর দুই ছাত্র-ছাত্রীর আত্মহত্যা

শিমুল হাছান :
চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে মাদ্রাসায় পড়ুয়া অষ্টম শ্রেণির ২ শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে। ১৬ জুন রাতে উপজেলার গোবিন্দপুর উত্তর ইউনিয়নের জমাদার বাড়ির আবুল বাশারের ছোট মেয়ে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী হাবিবা আক্তার (১৬) ঘরের আড়ার সাথে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। হাবিবা ধানুয়া ফাজিল মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী।

পরিবারের লোকজন জানান, রাতে বড় বোনের সাথে মোবাইল ফোনে কথা বলে ঘুমাতে যায়। এরপর রাতে তার বড় ভাবী প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘুম থেকে উঠে দেখে হাবিবা ঘরের আড়ার সাথে ঝুলে আছে। তার চিৎকারে পরিবারের অন্য সদস্যরা ঘুম থেকে উঠে তার মৃতদেহ ঝুলন্ত অবস্থা থেকে নামানোর আগেই তার শরীর নিথর হয়ে যায়। হাবিবার আত্মহত্যার ঘটনা স্থানীয়রা রহস্যজনক বলে মনে করছেন।

আত্মহত্যার সংবাদে ফরিদগঞ্জ থানার এসআই মশিউর আলম সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থল থেকে হাবিবার মৃতদেহ উদ্ধার করে এবং ময়না তদন্তে জন্য লাশ চাঁদপুর মর্গে প্রেরণ করেন।

একই দিন সকালে উপজেলার সুবিদপুর পূর্ব ইউনিয়নের মনতলা ইউসুফ জমাদার বাড়ির আলমগীর হোসেনের ছেলে মানুরী ফাজিল মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণির ছাত্র মো. সিয়াম হোসেন (১৫) বাবার সাথে অভিমান করে ইদুর সারা ঔষধ খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে পরিবারের লোকজন তাকে পাশ্ববর্তী হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। পরে পরিবারের লোকজন সিয়ামের লাশ বাড়িতে নিয়ে আশে।

বিষপানে আত্মহত্যার সংবাদ পেয়ে ফরিদগঞ্জ থানার এসআই মশিউর রহমান সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থল থেকে হাবিবার মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর মর্গে প্রেরণ করেন।

এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহীদ হোসেন জানান, উপজেলার গোবিন্দপুর উত্তর ইউনিয়ন এবং সুবিদপুর পূর্ব ইউনিয়নে দুই শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার সংবাদে আমরা মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে প্রেরণ করেছি এবং আত্মহত্যার ঘটনায় দু’টি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।