চাঁদপুরে স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যার পর পালিয়েছে স্বামী

শাওন পাটওয়ারী :
চাঁদপুর সদর উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের মুন্সিরহাট এলাকায় রুপা বেগম (২৮) নামের এক নারীর গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সোমবার (০৯ মে) বেলা ১১টার দিকে ওই এলাকার দনপর্দ্দি গ্রামের মজিদ প্রদানিয়া বাড়ির দ্বিতল বিল্ডিং এর নিচতলা থেকে মরদেহ উদ্ধার করে চাঁদপুর সদর মডেল থানা পুলিশ।

নিহত রুপা বেগম একই ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের বাংলাবাজার এলাকার প্রধানিয়া বাড়ির নাছির দেওয়ানের স্ত্রী। তার দুই পুত্র সন্তান রয়েছে। ঘটনার পর থেকে ওই নারীর স্বামী নাছির দেওয়ান পলাতক রয়েছেন। রুপা বেগমের পিতার বাড়ি সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়নের কমলাপুর গ্রামে।

স্থানীয় বাসিন্দা লিটন হাজারা জানান, নাছির দেওয়ান স্ত্রী সন্তান নিয়ে মজিদ প্রধানিয়ার বাড়িতে ভাড়া থাকেন। পেশায় রং মিস্ত্রি। রোববার দিবাগত রাতের কোন এক সময় এই হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা সংবাদ দিলে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে। কি কারণে এই হত্যাকান্ড তা জানা যায়নি।

এদিকে সংবাদ পেয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সিআইডি পিবিআই ও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আসিফ মহিউদ্দিন বলেন, চাঁদপুর সদর উপজেলার বিষ্ণপুর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের ধনপর্দ্দি গ্রামের প্রধানিয়া বাড়িতে ভাড়াটিয়া নাসির উদ্দীন দেওয়ান তার স্ত্রী রূপা বেগম কে ধারালো বটি দা দিয়ে গলা জবাই করে হত্যা করা হয়। আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্হলে এসে হত্যার কাজে ব্যবহৃত দা উদ্ধার করেছি। আমাদের সাথে সিআইডি, পিবিআইসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তাৎক্ষণিক তদন্ত কাজ শুরু করেছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।