চাঁদপুরে ৭ ঘন্টার ব্যবধানে ৬১ লাখ টাকা উদ্ধার করেছে পুলিশ

শাওন পাটওয়ারী :
চাঁদপুর শহরের জোড়পুকুরপাড় এলাকায় অটোবাইকে ভুল করে ফেলে যাওয়া ৬১ লাখ টাকা ৭ ঘন্টা পর সন্ধ্যায় পুরাণবাজারের একটি গ্যারেজ থেকে উদ্ধার করেছে চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশ। এ খবরে রোববার দিনভর চাঁদপুর শহরে তোলপাড় লেগে যায়।

জানা যায়, বিকাশ কোম্পানীর কর্মকর্তা মাসুদ রোববার (২১ জুন) বেলা সাড়ে ১১টায় চাঁদপুর পৌরসভা ভবন সংলগ্ন ইউসিবিএল ব্যাংক থেকে ৬১ লাখ টাকা উঠিয়ে অটোবাইকে করে জোড়পুকুড়পাড় আসে। অটোবাইকের ভাড়া দিয়ে টাকার ব্যাগ না নিয়ে মনের ভুলে তিনি নেমে যান।

পরে অটোবাইকটি জোড়পুকুরপাড় মসজিদের সামনে আসে। ওই এলাকার সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে অটোবাইক, চালক ও টাকার ব্যাগ শনাক্ত হয়। সিসি টিভির ফুটেজে দেখা যায়, চালক কিছু সময় সেখানে অবস্থান করেন। এরপর ব্যাগটি নিয়ে গাড়িসহ চলে যান।

চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশ ও ডিবি পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করলে পুলিশ অটোবাইক ও চালককে খুঁজতে শুরু করে। সন্ধ্যার দিকে একটি সূত্রে খবর পেয়ে চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশ পুরাণবাজারের একটি অটোবাইকের গ্যারেজ থেকে টাকাগুলো উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। চালককেও থানায় আনা হয়। পরে অবশ্য পুলিশের পক্ষ থেকে তাকে নগদ অর্থে পুরস্কৃত করে ছেড়ে দেওয়া হয়।

বিকাশের এজেন্ট আলমগীর আলম জুয়েল জানান, টাকাগুলো বিকাশের টাকা। ব্যক্তিগত গাড়িতে করে টাকাগুলো নেওয়ার জন্য সকালে তিনি অপেক্ষা করছিলেন। তার স্টাফ ভুল করে টাকার ব্যাগ অটেবাইকে রেখে চলে যান। পরে এসে আর অটোবাইকটি দেখতে পাননি। এরপর টাকাসহ অটোবাইক লাপাত্তার খবরটি তিনি পুলিশকে অবহিত করেন। সন্ধ্যায় পুলিশের সহযোগিতায় সব টাকা উদ্ধার হয়। এ জন্য তিনি পুলিশকে ধন্যবাদ জানান।

পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার ৭ ঘন্টা পর পুরানবাজার হরিসভা রোডের পুরান ফায়ার সার্ভিস এলাকা থেকে অটোবাইকের চালক সজীবের (১৮) কাছ থেকে ৬১ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। একটি অটোবাইকের গ্যারেজ থেকে লাল রঙের ব্যাগভর্তি অবস্থায় টাকাগুলো উদ্ধার করা হয়।

অটোবাইকের চালক সজীব জানায়, টাকাগুলো পেয়ে সে আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। টাকাগুলো ফেরত দিতে সে ঘটনাস্থলে কিছু সময় অপেক্ষা করে। পরে কেউ না আশায় সে সরাসরি তার পুরানবাজার গ্যারেজে চলে যায়।

সজিব জানিয়েছে, খারাপ উদ্দেশ্যে সে টাকাগুলো নিয়ে রাখেনি। তার দাবি, সে কিভাবে টাকাগুলো ফেলে যাওয়া ব্যক্তিকে ফেরত দিবে এটা নিয়ে চিন্তা করতে করতে অনেক সময় চলে গেছে।

এ ব্যাপারে চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ নাসিম উদ্দিন বলেন, সিসি টিভির ফুটেজ দেখে চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশ ও ডিবি পুলিশ দিনভর অটোচালককে খুঁজতে থাকে। পরে বিকেলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুরানবাজার এলাকার একটি অটোর গ্যারেজ থেকে আমরা টাকাগুলো উদ্ধার করি।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন