চাঁদপুর জেলায় ভারত ফেরত করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের মাস্ক বিতরণ কর্মসূচিতে এ তথ্য জানালেন জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুর প্রেসক্লাবের উদ্যোগে করোনার বিস্তার প্রতিরোধে জনসচেতনামূলক প্রচারণা ও মাস্ক বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। এ উপলক্ষে শনিবার সকালে চাঁদপুর পৌর বাসস্যান্ড এলাকায় সামাজিক সচেতনতার লক্ষ্যে সচেতনতামূলক প্রচারণা ও মাস্ক বিতরণ করেছে চাঁদপুর প্রেসক্লাব।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ। বিশেষ অতিথি ছিলেন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র অ্যাড. জিল্লুর রহমান জুয়েল, চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সানজিদা শাহনাজ।

সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকেই করোনাভাইরাস থেকে নিজেদের রক্ষা করাসহ সচেতনতা সৃষ্টি করতেই চাঁদপুর প্রেসক্লাবের উদ্যোগে নিম্নআয়ের মানুষদের মাস্কসহ সচেতনতামূলক প্রচারণা করা হয়েছে। প্রেসক্লাবের সদস্যরা মনে করেন প্রত্যেক মানুষ নিজেদের সুরক্ষা করতে পারলে আমাদের দেশও সুরক্ষিত হবে।

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশার পরিচালনায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি কাজী শাহাদাত, শহীদ পাটওয়ারী, বি এম হান্নান, শরীফ চৌধুরী ও গিয়াস উদ্দিন মিলন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সোহেল রুশদী, লক্ষ্মণ চন্দ্র সূত্রধর ও এএইচএম আহসান উল্লাহ, বর্তমান যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোরশেদ আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক ইব্রাহীম রনি, অর্থ সম্পাদক চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম, প্রচার দপ্তর সম্পাদক কাদের পলাশ, ক্রীড়া সম্পাদক ফারুক আহম্মদ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক একে আজাদ, সমাজকল্যাণ সম্পাদক আশরাফুল আলম, আপ্যায়ন ও বিনোদন সম্পাদক হাসান মাহমুদ, কার্যকরী সদস্য মুনির চৌধুরী, সদস্য শরীফুল ইসলাম প্রমুখ।

জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ তার বক্তব্যে বলেন, করোনা থেকে রক্ষা পেতে হলে ব্যক্তিগত স্বাস্থ্য সচেতনতা বাড়াতে হবে। চাঁদপুর প্রেসক্লাব এ ক্ষেত্রে মাস্ক বিতরণসহ বিভিন্ন প্রশংসনীয় কার্যক্রম পরিচালনা করছে। কারণ, একজনের অসচেতনতার ফলে অনেক মানুষ করোনায় আক্রান্ত ও ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। চাঁদপুর জেলায় ইতিমধ্যে ভারতফেরত করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। হাজীগঞ্জের ওই বাড়িটিকে আমরা লাল পতাকা টানিয়ে লকডাউন করে দিয়েছি।

পৌর মেয়র অ্যাড. জিল্লুরর রহমান জুয়েল বলেন, স্বাস্থ্যবিধি না মানলে আমরা সবাই ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কতদিন দীর্ঘস্থায়ী হবে তা আমরা কেউ জানি না। তাই করোনা পরিস্থিতিতে মাস্ক পরে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে আমাদের জীবনযাত্রা স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করতে হবে।

চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ বলেন, করোনা মোকাবেলায় জনসচেতনতার বিকল্প নেই। চাঁদপুর প্রেসক্লাব ধারাবাহিকভাবে মাস্ক বিতরণের যে কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে তা প্রশংসনীয় ও অনুকরণীয়। আসুন, করোনার সংক্রমণ রোধে আমরা সবাই একযোগে কাজ করে সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়ন করি।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন