চাঁদপুর সদর হাসপাতাল শিশু বিভাগের রোগী দেখেন মেডিকেল এ্যাসেসটেন্ট!

শাওন পাটওয়ারী :
চাঁদপুর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট সরকারি জেনারেল (সদর) হাসপাতালের শিশু বিভাগের জুনিয়র কনসালটেন্টে ডা. আসমা বেগমের অনুপস্থিতিতে রোগী দেখেন মেডিকেল এ্যাসেসটেন্ট রুবেল দাস। শনিবার বেলা ১১টায় চাঁদপুর সদর হাসপাতালের ২য় তলায় ২১০নং কক্ষে গিয়ে সরেজমিনে এমন চিত্র ফুটে ওঠে। সাংবাদিকের উপস্থিতি টের পেয়ে মেডিকেল এসিসটেন্ট রুবেল দাস মুহূর্তের মধ্যে সটকে পরেন।

এদিকে দীর্ঘক্ষন দীর্ঘ লাইনে অসুস্থ শিশুদের নিয়ে ডাক্তারের জন্য অপেক্ষা করতে দেখা গেছে।
চেম্বারে সাংবাদিকদের আসার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন শিশু বিভাগের জুনিয়র কনসালটেন্টে ডাঃ আসমা বেগম। জানা যায় তিনি এতক্ষন হাসপাতালে রাউন্ড ডিউটিতে ছিলেন।

ডা. আসমা জানান, মেডিকেল এ্যাসেসটেন্ট রোগী দেখতে পারেন না। তাকে তো রোগীর সিরিয়াল দেখার জন্য রাখা হয়েছে।

মেডিকেল এ্যাসেসটেন্ট রুবেল দাস বলেন, আমি তো আগে থেকেই রোগী দেখি। এখন পর্যন্ত কোন রোগী তো কোন অভিযোগ করেনি।

এ ব্যাপারে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক মাহবুবুর রহমান জানান, ঘটনাটি আপনাদের মাধ্যমে জেনেছি। বিষয়টি তদন্ত করে আপনাদেরকে জানাবো।

ভুক্তভোগীর রোগীর স্বজনরা জানান, আমরা তো মনে করেছি উনি ডাক্তার। উনার চিকিৎসার আমাদের বাচ্চাদের যদি কোন সমস্যা হয় তাহলে এর দায়ভার কে নিবে?

এদিকে সদর হাসপাতালের অফিস সহকারী হোসেন আরা হাসপাতালে দাড়িয়ে রোগীদের মাঝে ডাক্তারদের ব্যক্তিগত চেম্বারের ভিজিডিং কার্ড বিতরণ করতে দেখা গেছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।