নারায়ণগঞ্জ থেকে চান্দ্রায় আসা লোকদের ২৬ বাড়ি লকডাউন

শরীফুল ইসলাম :
চাঁদপুর সদর উপজেলার চান্দ্রা ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে ওয়ার্ডে করোনা কবলিত নারয়ানগঞ্জ ও ঢাকা হতে ২৬জন লোক আসার সংবাদ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে ওই এলাকায় আতংক বিরাজ করছে। দু’দিনে স্থানীয় ২৬টি বাড়িতে প্রশাসনের নির্দেশনা মোতাবেক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটোয়ারী লাল পতাকা টাঙ্গিয়ে লকডাউন ঘোষণা করেন। লকডাউনকৃত বাড়ি-ঘরের সকল বাসিন্দাকে টানা ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বিভিন্ন সূত্রে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, নারায়নগঞ্জ হতে যারা এসেছে তাদের মধ্যে রয়েছে : ১নং ওয়ার্ডের ৪জন; কাদির বেগের ১ পুত্র, শাহলাম বেগের ২ পুত্র, জয়নাল বেগের ১ পুত্র। ৬নং ওয়ার্ডের আবদুল আলী মিজি বাড়িতে ৪জন। ৮নং ওয়ার্ডের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম আবুল খায়ের মিয়ার চেয়ারম্যান রোড হারুন হাওলাদারের মেয়ের জামাই মোঃ মহসিন আখন। ৯নং ওয়ার্ড আঃ রব শেখের মেয়ের জামাই এবং ২ মেয়ে, গাবতলী মার্কেটের পাশে হেদু মিজীর বাড়ির আলী এরশাদ মিজির পুত্র। এছাড়া ৫নং ওয়ার্ডে ৫জন, ৩নং ওয়ার্ডে ২জন ৭নং ওয়ার্ড ১জন।

চান্দ্রা ইউপি চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটোয়ারী বলেন, নারায়নগঞ্জ হতে আসা লোকদের ১৩টি বাড়ি মঙ্গলবার লকডাউন করা হচ্ছে। আর আজ বুধবার আরো ১৩টি বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। গ্রামগুলো হলো বাখরপুর, মদনা, বালিয়া, দক্ষিণ বালিয়া।

এ সময় লাল পতাকা টানানো ও লকডাউন ঘোষণা কালে উপস্থিত ছিলেন ইউপি সদস্য সিদ্দিকুর রহমান বেপারী, আব্বাস পাটওয়ারী, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক আইরিন বেগম, স্বাস্থ্য সহকারী ফরহাদ হোসেনসহ গ্রাম পুলিশ সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সাজেদা বেগম পলিন বলেন, সদরের বিভিন্ন এলাকায় নারায়নগঞ্জ থেকে লোক আসার খবর পাওয়া যাচ্ছে। এর মধ্যে চান্দ্রায় সবচেয়ে বেশি লোক আসার খবর পাওয়া গেছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন