বাবা করল সন্তান বিক্রি : পুলিশ ফিরিয়ে দিল মায়ের কোলে

তালহা জুবায়ের :
চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ থানা পুলিশের তৎপরতায় মায়ের কোল ফিরে পেল অবুঝ শিশু আবদুল্লাহ। নেশার টাকা যোগাড় করতে না পেরে গত ৪ জুন দেড় বছরের শিশু সন্তানকে বিক্রি করে দেয় নেশাগ্রস্ত পিতা ইমরান হোসেন। পরে শিশুটির মা লামিয়া বেগমের অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার রাতে পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করে ফিরিয়ে দেয় মায়ের কোলে। দুই সন্তানের জননী লামিয়া বেগমের ৬ মাস বয়সী একটি মেয়ে রয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, মতলব পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের বাবুরপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ইমরান হোসেন। আগে থেকেই সে নেশার সাথে জড়িত ছিল। গত ৪ জুন নেশার টাকা সংগ্রহ করতে না পেরে ঘর থেকে শিশু আবদুল্লাহ নিয়ে বের হয়ে যায়। পরে মাত্র ২০ হাজার টাকার বিনিময়ে মতলব উত্তর উপজেলার সুলতানাবাদ ইউনিয়নের চরলক্ষ্মীপুর গ্রামের মোসলেম উদ্দিনের মেয়ে নিঃসন্তান রুমা আক্তারের কাছে বিক্রি করে দেয়। নাড়ী ছেড়া ধন শিশুটিকে না পেয়ে হতদরিদ্র মা লামিয়া বেগম মতলব দক্ষিণ থানা পুলিশকে অবহিত করেন। পরবর্তীতে থানার ওসি মোঃ মহিউদ্দিন মিয়ার নির্দেশে এসআই রুহুল আমিন ও সঙ্গীয় ফোর্স অভিযান চালিয়ে মতলব উত্তর উপজেলার চর লক্ষীপুর গ্রাম থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দেন ।

মতলব দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মিয়া বলেন, লামিয়া বেগম থানায় এসে আমাদেরকে বিষয়টি জানালে সাথে সাথেই পুলিশ তার সন্তানকে খুঁজতে বিভিন্ন জায়গায় অভিযান করে। পরে মতলব উত্তর উপজেলার চরলক্ষীপুর থেকে তার সন্তানকে উদ্ধার করে তার কোলে ফিরিয়ে দেয়া হয়। মূলত শিশুটির বাবা একজন নেশাগ্রস্ত মানুষ। সে তার নেশার টাকা যোগাড় করতে না পেরে অবুঝ শিশুটিকে বিক্রি করে দেয়। যদিও এই ঘটনার পর থেকে সে পলাতক রয়েছে। স্ত্রী-সন্তানের তেমন খোঁজ খবর রাখে না। তাই লামিয়া বেগম ভিক্ষাবৃত্তি করে সংসার চালান বলে জানান তিনি।
মতলব দক্ষিণ থানার উপপরিদর্শক রুহুল আমিন বলেন, মাদকসেবী ইমরান হোসেন মাদকের টাকা জোগাড় করতে তার ছেলে আব্দুল্লাহকে ২০ হাজার টাকা বিক্রি করে দেয় নিঃসন্তান রুমা আক্তার দম্পতির কাছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।