মুক্তিযুদ্ধ জনস্বার্থ ও সত্য তুলে ধরার ক্ষেত্রে নিরপেক্ষ থাকার সুযোগ নেই : শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুর প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির অভিষেক ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রেসক্লাবের কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি। অনুষ্ঠনে নবগঠিত কমিটির নেতৃবৃন্দকে সংবর্ধনা ক্রেস্ট প্রদান করেন অতিথিবৃন্দ। এছাড়া চাঁদপুর প্রেসক্লাবের মাধ্যমে বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট কর্তৃক প্রদত্ত অসুস্থ সাংবাদিকদের মাঝে অনুদানের চেক প্রদান করা হয়।

চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি গিয়াস উদ্দিন মিলনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ ফেরদৌসের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ, পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ, ভাষাবীর এমএ ওয়াদুদ ট্রাস্ট্রের ট্রাস্টি ডা. জেআর ওয়াদুদ টিপু, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল, চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডা. সৈয়দা বদরুন্নাহার চৌধুরী।

সাংবাদিকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া জীবন, অ্যাড. ইকবাল-বিন-বাশার, কাজী শাহাদাত, অধ্যাপক জালাল চৌধুরী, বিএম হান্নান ও শরীফ চৌধুরী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, সোহেল রুশদী, জি এম শাহিন, মির্জা জাকির, লক্ষ্মন চন্দ্র সূত্রধর, এএইচএম আহসান উল্লাহ, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আল ইমরান শোভন, সিনিয়র সদস্য আব্দুর রহমান, রোকনুজ্জামান রোকন, ফারুক আহমেদ, মোশাররফ হোসেন লিটন, এম এ লতিফ, সম্মানিত সদস্য আনোয়ার হাবিব কাজল, আজীবন সদস্য এম আই মমিন খান, ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবদুস সোবহান লিটন, হাজীগঞ্জ প্রেসক্লাবের পক্ষে কামরুজ্জামান টুটুল।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রীর একান্ত সচিব আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন, চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মাহবুবুর রহমান, সহকারী পরিচালক ডা. সাজেদা বেগম পলিন, এনএসআই’র উপ-পরিচালক শাহ মো. আরমান, চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ, ভাইস চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী বেপারী, পুরানবাজার ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ রতন কুমার মজুমদার, বাবুরহাট স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মোশারেফ হোসেন, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি কামাল উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন, সাবেক সভাপতি সেলিম আকবর, পিপি অ্যাড. রনজিত রায় চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারী ও অ্যাড. মজিবুর রহমান ভূঁইয়া, ডিআইও-১ মনিরুল ইসলাম, চাঁদপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুর রশিদ, জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহফুজুর রহমান টুটুল, জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত সমবায়ী জসিম উদ্দিন শেখ, প্যানেল মেয়র মোহাম্মদ আলী মাঝি, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জহির মিজি প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, পারিবারিক কারণেই আমি সংবাদপত্রের সাথে জড়িত ছিলাম। সাংবাদিক জগৎটা যথেষ্ট বড়। যেভাবে চাঁদপুর প্রেসক্লাব কাজ করে আসছে, তা খুবই প্রশংসনীয়। আমি প্রেসক্লাবে আসলে স্মৃতিকাতর হয়ে পড়ি। এখানে আমার দীর্ঘদিনের সম্পর্ক। এ জন্য সংবাদপত্র আমার পরিবারের একটি অংশ। মানুষ সংবাদপত্রের প্রতি আস্থা রাখেন, তাই সঠিকভাবে তথ্য তুলে ধরতে হবে। সংবাদপত্র পড়ে মানুষ অনেক কিছু জানে ও শিখে। তাই সাংবাদিকদের অনেক দায়িত্ব। মুক্তিযুদ্ধ স্বাধীনতা দেশের স্বার্থ জনস্বার্থ ও সত্য তুলে ধরার ক্ষেত্রে নিরপেক্ষ থাকার সুযোগ নেই। এসব ক্ষেত্রে নিরপেক্ষ থাকা মানে এসবের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া।

তিনি আরো বলেন, আমার পক্ষ থেকে যতটুকু সক্ষমতা আছে, আমি আপনাদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করবো। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমলে সাংবাদিকদের অনেক উন্নয়ন হয়েছে। শেখ হাসিনা থাকলে একজন সাংবাদিকও বিনা চিকিৎসায় মারা যাবে না।

তিনি আরও বলেন, শাহরাস্তি সাংবাদিক বন্ধুর কথা শুনে ব্যথিত হয়েছি। বিনা চিকিৎসায় কিভাবে মারা গেল তা শুনে সত্যিই আমি ব্যথিত। যদি কারো চিকিৎসার দরকার হয় তাদের পাশে আছি। একটি কথা মনে রাখবেন যাদের কোন তহবিল নেই তাদের পাশে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আছেন। সেটা যেন আমরা ভুলে না যাই।

অভিষেক অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তিলাওয়াত করেন আব্দুর রহমান গাজী। গীতা পাঠ করেন সাবেক সাধারণ সম্পাদক লক্ষণ চন্দ্র সূত্রধর।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।