মুক্তিপণের জন্য খুন হওয়া হান্নানের লাশ নিয়ে চাঁদপুর শহরে মিছিল : সড়ক অবরোধ

শাওন পাটওয়ারী/শরীফুল ইসলাম :
মুক্তিপণের জন্য খুন হওয়া হান্নান হত্যার বিচারের দাবিতে নিহতের লাশ নিয়ে মিছিল করেছে পরিবার ও এলাকাবাসী। তারা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় চাঁদপুর-কুমিল্লা সড়কও অবরোধ করে। এ সময় আশপাশের কয়েক কিলোমিটার এলাকাজুড়ে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত সড়ক অবরোধ চলে।

এর আগে মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) সকাল সাড়ে ৯টা শহরের বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে গিয়ে শেষ হয়।

বিক্ষোভকারীরা চাঁদপুর সদর মডেল থানা ঘেরাও করার উদ্দেশ্যে কালিবাড়ি মোড় পর্যন্ত আসলে ওসি মুহাম্মদ আবদুর রশিদ দ্রুত আসামীদের গ্রেফতারের আশ্বস্থ করে পরিস্থিতি শান্ত করেন। পরে বিক্ষোভকারীরা কালিবাড়ি থেকে নতুনবাজার হয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের দিকে মিছিলটি রওনা হয়। মিছিলে কয়েক শত লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

বোনের জামাতা রুবেল ও চাচাতো ভাই আল-আমিনসহ পরিবারের সদস্যরা জানায়, আমরা হান্নানের স্ত্রী হিরা ও শ্যালক শাওনকে দ্রুত আইনের আওতায় আনতে প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করছি। হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতারের মাধ্যমে ফাঁসির দাবি জানাই।

চাঁদপুর সদর মডেল থানার ওসি মুহাম্মদ আবদুর রশিদ জানান, দ্রুত আসামীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। বিক্ষোভকারীদের বিষয়টি আশ্বস্ত করা হয়েছে।

শ্বশুড় বা‌ড়ি যাওয়ার পর থেকে নি‌খোঁজ হান্নান মৃধা (৩৭) নামের ব্যবসায়ীর ১৩ দিন পর বেনাপোল থেকে মৃত অবস্থায় সন্ধান মিলে।

হান্নান মৃধা চাঁদপুর পৌরসভার ১৫নং ওয়া‌র্ডের বিষ্ণুদী মৃধা বাড়ি এলাকার আবুল হো‌সেন মৃধার ছে‌লে। বিষ্ণুদী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কাছে তার একটি দোকান রয়েছে। ১৩ মার্চ সকাল ৯ টায় যশোরের শার্শা থানা পুলিশ খবর পেয়ে একটি গাছে হান্নানের মরদেহ মাটিতে পা লাগানো ঝুলন্তবস্থায় উদ্ধার করেছে।

১৫ মার্চ সোমবার রাতে বেনাপোল থেকে হান্নানের লাশ ময়নাতদন্ত শেষে চাঁদপুর নিয়ে আসা হয়। এর পূর্বে বেনাপোলে হান্নানের লাশ পাওয়ার খবর শুনে স্বজনরা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।