ষাটনলে সাবেক মন্ত্রী মায়া চৌধুরীর পক্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :
করোনার প্রাাদুুর্ভাবে কর্মহীন, দুস্থ ও অসহায়দের মাঝে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সাবেক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (মায়া) বীর বিক্রম ও তার পরিবারের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য সাজেদুল হোসেন চৌধুরী দিপু ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সম্পাদক আশফাক চৌধুরী মাহির সার্বিক ব্যবস্থাপনা ও পরিচালনায় চাঁদপুর-২ আসনের মতলব উত্তর ও দক্ষিণ উপজেলার সকল ইউনিয়ন এবং পৌরসভার প্রধানমন্ত্রীর উপহার (খাদ্য সামগ্রী) বিতরণ অব্যাহত রয়েছে।

বুধবার সকালে ষাটনল ইউনিয়নে সাবেক ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রমের পরিবারের পক্ষ থেকে ৪০০ পরিবারের মাঝে অসহায়/কর্মহীন মানুষের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর উপহার বিতরণ বিতরণ করা হয়।
উপহার সামগ্রীর মধ্যে ছিল ৫ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, ১ কেজি তেল, ২ কেজি আলু, ১ কেজি ছোলা ও ১ টি সাবান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জহিরাবাদ ইউনিয়ন আ’লীগ নেতা মোঃ জালাল উদ্দিন, মুকবুল হোসেন প্রমুখ।

সাবেক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (মায়া) বীর বিক্রম ও তার পরিবারের পক্ষে বিতরণ কার্য পরিচালনা করেন উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি ও উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, ষাটনল ইউপি চেয়ারম্যান একেএম শরীফ উল্লাহ সরকার, ষাটনল ইউনিয়ন আ’লীগের সহ-সভাপতি মোঃ হারুন-অর-রশিদ ও চাঁদপুর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ জহির রায়হান।

এ সময় ষাটনল ইউনিয়ন আ’লীগের সহ-সভাপতি ইলিয়াছ আলী মিয়াজী, ষাটনল ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি গোলাম মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক মোঃ সেলিম খান টিটু, সহ-সভাপতি মোঃ জহির বেপারী, ষাটনল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল হাসান দোলন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ রাশেদ হাসানসহ বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উপহার সামগ্রী বিতরণের পূর্বে মুঠোফোনে সাবেক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (মায়া) বীর বিক্রম বলেন, দেশের দারিদ্র্যপীড়িত জনগোষ্ঠীর ভাগ্যের পরিবর্তন করাই আওয়ামী লীগের রাজনীতি। বাংলার প্রতিটি মানুষের আশ্রয়, শিক্ষা, চিকিৎসা, খাদ্য ও বস্ত্র নিশ্চিত করতে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার কাজ করছে। কাজেই বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় একটি দুস্থ পরিবারও অনাহারে থাকবে না, না খেয়ে থাকবে না। করোনা ভাইরাসের এই সংকটকালে বঙ্গববন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থা স্থিতিশীল রাখার জন্য কৃষি, স্বাস্থ্য, রপ্তানী শিল্প ও গার্মেন্টস সহ বিভিন্ন সেক্টরে প্রণোদনা এবং অসহায় মানুষের মধ্যে খাদ্য সহায়তা অব্যাহত রেখেছেন।

সাবেক মন্ত্রী মায়া বলেন, এ সংকট কালে ঢাকায় থাকলেও আমার মন পড়ে আছে প্রিয় চাঁদপুর-২ আসনের মানুষের মাঝে। লকডাউনের কারণে মতলবের মানুষের মাঝে উপস্থিত হতে না পেরে দুঃখ প্রকাশ করছি। তাই অভুক্ত যাতে না থাকতে হয়, সেজন্য আপনাদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার পাঠালাম।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ মেনে চলতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঘরে থাকতে হবে। নতুবা জনগণ ক্ষতিগ্রস্ত হবে, দেশ ক্ষতিগ্রস্ত হবে। তিনি বাংলাদেশসহ বিশ্বের করোনা আক্রান্ত দেশগুলোর মানুষের জন্যে আল্লাহর নিকট ক্ষমা প্রার্থনা করতে দেশের আলেম সমাজসহ সকল ধর্ম বর্ণ ও মানুষের প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।

তিনি আরো বলেন, সারাদেশে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা। খাদ্য সহায়তার পাশাপাশি আর্থিক ও চিকিৎসা সহায়তা দিচ্ছে। এ সময়ে প্রধানমন্ত্রী বয়স্ক ও অসহায়দের পাশে দাঁড়াতে নেতা-কর্মীদের নির্দেশনা দিয়েছেন। সারাদেশে আওয়ামী লীগ পরিচালিত ত্রাণ কার্যক্রম করোনা সংকটে নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

চাঁদপুর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ জহির রায়হান জানান, সাবেক মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (মায়া) বীর বিক্রম ও তার পরিবারের পক্ষ থেকে মতলব উত্তর ও মতলব দক্ষিণ এ দু’উপজেলায় দ্বিতীয় ধাপে ১০ হাজার পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় আজকে আমাদেল ষাটনল ইউনিয়নে ৪ শতাধিক কর্মহীন দরিদ্র অসহায় পরিবারকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, মায়া চৌধুরী সাবেক দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম এর পক্ষ থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য সাজেদুল হোসেন চৌধুরী দিপু ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সম্পাদক আশফাক চৌধুরী মাহির সার্বিক ব্যবস্থাপনা ও পরিচালনায় চাঁদপুর-২ আসন (মতলব উত্তর-দক্ষিণ) উপজেলায় সকল ইউনিয়ন এবং পৌরসভার ১০ হাজার অসহায়, কর্মহীন মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর রমজানের উপহার বিতরণের দ্বিতীয় ধাপের কার্যক্রম চলছে। যা গত ৯ মে মতলব উত্তর উপজেলার ফতেপুর পূর্ব ও কলাকান্দা ইউনিয়নের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে। বুধবার ষাটনল ইউনিয়ন ও ইসলামাবাদ ইউনিয়নে পঞ্চম দিনের খাদ্য সহায়তা প্রদান কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন